নোয়াখালীর সেনবাগ হাসপাতালের সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর নিকট হাসান মঞ্জুরের আকুল আবেদন।








এফ এম শাহ রিপন,স্টাফ রিপোর্টারঃ


জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সেনবাগ উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি হাসান মঞ্জুর সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী নিকট যে আকুল আবেদন করেছেন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি সম্পূর্ণ তুলে ধরা হলোঃ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
প্রিয় সেনবাগবাসী এবং সেনবাগ-সোনাইমুড়ী নির্বাচনী এলাকার সর্বস্তরের জনগণ,আমার প্রাণ প্রিয় সেনবাগ বাসি,আজকের এই করোনা ভাইরাসের সময় আমি আবার আপনাদের মাঝে উপস্থিত হয়েছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট সেনবাগ হাসপাতালের সমস্যা সমাধানের জন্য আকুল আবেদন। আমি সেনবাগের জনগণের সর্বস্তরের জনগণের পক্ষ থেকে সর্বপ্রথম সেনবাগের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বিন্দু,সেনবাগের সাংবাদিক বিন্দু,সেনবাগের সেচ্ছাসেবী সংগঠন, সেনবাগের আওয়ামিলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ, বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, জাতীয় পার্টি সহ সকল রাজনৈতিক নেত্রী বিন্দুর কাছে আমার আকুল আবেদন। বর্তমান সেনবাগ হাসপাতালের দূর অবস্থা,এই দূর অবস্থায় হাসপাতালের জন্য একটি এক্সরে মেশিন,একটি জেনারেটর,একটি এম্বুলেন্স,নষ্ট এবং বিল্ডিং এ পানি পড়ে, এই বিল্ডিং এ যারা ঠিকাদারি করেছেন,কনটেক্টটারি করেছেন,তারা এইভাবে কনটেক্টটারি করায় হাসপাতালে বৃষ্টির পানি দিয়ে ভর্তি হয়ে যায়। এতে করে সাধারণ মানুষের অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।আমি মনে করি যিনি হাসপাতালের দায়িত্বে রয়েছেন সরকারি কর্মকর্তা ও যে সকল ডাক্তাররা উনাদের অবহেলা রয়েছে। কারণ লক্ষ্য লক্ষ্য টাকা সরকারি দেওয়া স্পেরে মেশিন, এম্বুলেন্স, জেনেটার, তাদের যদি সৎ ইচ্ছে না থাকে তাহলে এ হাসপাতালের কখনো উন্নতি হবে না। আমি মনে করবো মাননীয় সংসদ সদস্য, মাননীয় উপজেলা চেয়ারম্যান, মাননীয় উপজেলা প্রশাসন আপনাদের কাছে আকুল আবেদন থাকবে, আপনারা অতি সত্বে সেনবাগ হাসপাতালে ভিজিটিং করে সেইখানে যে দূর অবস্থা, ইতিমধ্যে আমি জানতে পেরেছি সাধারণ মানুষদের লুটপাট, ইভটিজিং সহ বিভিন্ন অপকর্ম সৃষ্টি হচ্ছে,তাই আমি মনে করি সেনবাগ হাসপাতাল কে সুন্দর এবং সুস্থ ভাবে স্বাস্থ্য সেবায় ফিরিয়ে আনতে হবে। আমি সেনবাগের জনগণের উদ্দেশ্যে বলতে চাই,
আপনাদের দীর্ঘদিনের দাবি আমি আজকে গতবার স্বাস্থ্য মন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছি, আজকে এই সময় মাননীয় বাংলাদেশ সরকারের নিকট আকুল আবেদন
এবং তার পাশাপাশি মাননীয় সংসদ সদস্য মোরশেদ আলম সাহেবের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই, আপনি যদি আপনার নেত্রী বিন্দু ভাবতেন হাসপাতালের সমস্যা সমাধানের জন্য যে কথা গুলো আমরা বলেছি এই সমস্যা গুলোর সমাধান যদি নিয়ে আসেন,আজকের এই করোনা ভাইরাসে সেনবাগের মানুষ সুস্থ থাকবে, তারা সুন্দর ভাবে সেবা পাবে। আজকে যদি সেনবাগের মানুষ বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু বরন করেন এর থেকে দুঃখ জনক ঘটনা আর হতে পারে না। তাই সেনবাগের জনগণের প্রতি আমার আকুল আবেদন, আপনাদের যে ভূমিকা রয়েছে আমি আশা করি দল বল নির্বিশেষে আমাদের প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন আমাদের সেনবাগের হাসপাতাল কে রক্ষা করুন, আপনার দেওয়া সরকারি লক্ষ্য লক্ষ্য টাকা কোটি কোটি টাকার সম্পদ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, যারা পরিচালনার দায়িত্বে আছেন শুধু মাত্র তাদের অবহেলার কারণে।
তাই আমি মনে করবো,সয়ীত্বপ্রদত্ত একটি কমিটি গঠন করে।সেনবাগ হাসপাতালের উন্নত চিকিৎসার সরঞ্জাম বিশেষ করে বর্তমান করোনা ভাইরাসে যেসব জিনিস পত্র প্রয়োজন সেই সব প্রয়োজনীয় জিনিস পত্র দিবেন। ইতিমধ্যে সেনবাগের যুব সমাজেরা এই করোনা যুদ্ধে শ্রমজীবী পেশাজীবি কর্মজীবী সর্বস্তরের জনগণ কে আমি স্বাগতম জানাই। ইতিমধ্যে এই করোনা ভাইরাসে শিল্পপতিরা, ব্যবসায়ী বিন্দু,সাংবাদিক বিন্দু,স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন,উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল,জাতীয় পার্টি, সহ সর্বস্তরের জনতা বিশেষ করে এই করোনা ভাইরাসে যুদ্ধে সাংবাদিকদের ভুমিকা খবুই গুরুত্বপূর্ণ, তারা সেনবাগের অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন,বিশেষ করে প্রবাসী ভাইরা যারা আছেন যার যার সাধ্য অনুযায়ী যতটুকু সাহায্য করেছেন সেটি অতুলনীয়। বিশেষ করে সেনবাগের শিল্পপতি, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, শ্রমজীবী পেশাজীবি কর্মজীবী, সেচ্ছাসেবী সংগঠন সহ সসর্বস্তরের জনগণ
কে আমার জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই। এই করোনা ভাইরাসের সময় সকল দল বল নির্বিশেষে ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে এই হাসপাতালের চিকিৎসা সরঞ্জাম এর ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামনা করি, বিশেষ করে আমাদের জন্য এখন প্রয়োজন একটি এম্বুলেন্স, একটি ড্রাইভার, কিট, অক্সিজেন সিলিন্ডার, আইসোলিউসিন বেডের ব্যবস্থা,আমি স্বাস্থ্য মন্ত্রীর দৃস্টি আকর্ষণ করছি। আমি আশা করি আমরা সকলে যদি ঐক্য বধ্য ভাবে কাজ করি তাহলে আমাদের এই হাসপাতালের পরিবর্তন আসবে। ইতিমধ্যে জানতে পেরেছি চিকিৎসার সরঞ্জাম এবং বিভিন্ন ঔষধপত্র বিভিন্ন ভাবে বাজার জাত হয়ে যায়,এই সমস্ত বিষয় গুলো লক্ষ্য রাখার জন্য উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে অনুরোধ জানালাম। আমরা সকলে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে আল্লাহর রাব্বুল আলামিনের কাছে প্রার্থনা করবো হে রাব্বুল আলামিন তুমি আমাদের ক্ষমা করে দাও, এবং এই করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি দাও। আপনারা সকলে সুস্থ থাকুন ভালো থাকুন আল্লাহ হাফেজ। আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লা।
Theme images by johnwoodcock. Powered by Blogger.