যুদ্ধের পতাকা ওড়াল ইরান


 অনলাইন ডেস্কঃ
এলিট কুদস বাহিনীর প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার প্রতিশোধের হুঙ্কার দিয়েছে ইরান। দেশটি যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে 'কঠোর প্রতিশোধ' নেয়ার অঙ্গীকার করেছে। এরই মধ্যে দেশটি শনিবার যুদ্ধের প্রতীক হিসেবে পবিত্র মসজিদে ‘লাল পতাকা’ উড়িয়ে দিয়েছে। এই পতাকা বা ‘লাল ঝান্ডা’ ওড়ানোর অর্থ ইরান যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত।

শিয়া সংস্কৃতিতে লাল পতাকা, অন্যায় রক্তপাতের বদলা নেওয়ার প্রতীক।

জানা যায়, দেশটি শনিবার শিয়াদের পবিত্র নগরী ক্বোমের প্রখ্যাত জামকারান মসজিদের সর্ব্বোচ্চ গম্বুজে রক্তলাল পতাকা ওড়ায়। ইতিহাসে এই প্রথমবারের মতো ইরান জামকারান মসজিদে রক্তলাল পতাকা ওড়ানো হয়েছে, যেখানে লেখা রয়েছে ‘যারা হোসেনের রক্তের বদলা নিতে চায়’।

দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এই লাল ঝান্ডা ওড়ানোর মুহূর্ত প্রচারিত হয়।

এই পতাকা ওড়ানোর আগে ইরাকের বাগদাদে মার্কিন দূতাবাস ও সালাহউদ্দিন প্রদেশে মার্কিন সেনাদের বালাদ বিমান ঘাঁটিতে রকেট হামলার ঘটনা ঘটে। তবে বাগদাদের মার্কিন স্থাপনায় কারা হামলা চালিয়েছে তা এখনও কেউ নিশ্চিত করেনি।

ওই হামলায় একযোগে ৫টি রকেট ছোড়া হয়। এতে এখন পর্যন্ত ৫ জন আহত বলে জানা গেছে।

শুক্রবার ইরাকের বাগদাদের একটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় ইরানের বিপ্লবী এলিট কুদস বাহিনীর প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানি ও ইরান সমর্থিত পপুলরার মবিলাইজেশন ফোর্সেসের (পিএমএফ) উপ-প্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছেন। বিবিসি, আরব নিউজ।
Theme images by johnwoodcock. Powered by Blogger.